|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   চট্রগ্রাম -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
৫ দশমিক ৮ রিক্টার মাত্রার ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল বন্দরনগরী

আজ সোমবার ভোরে ভূমিকম্পের তীব্র ঝাঁকুনিতে কেঁপে উঠেছে বন্দর নগরী চট্টগ্রাম। ভোর ৪টা ৪০ মিনিটে সংগঠিত ভূমিকম্পের রিক্টর স্কেলে মাত্রা ছিল ৫.৮। এই সময়ে অনেকেই ঘুমে ছিলেন, আবার অনেকেই ফজরের নামাজ পড়ছিলেন।
তাৎক্ষণিকভাবে ভূমিকম্পের ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে কিছু জানা না গেলেও এর উৎপত্তিস্থল ভারতের মিজোরামে বলে জানা গেছে।

৫ দশমিক ৮ রিক্টার মাত্রার ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল বন্দরনগরী
                                  

আজ সোমবার ভোরে ভূমিকম্পের তীব্র ঝাঁকুনিতে কেঁপে উঠেছে বন্দর নগরী চট্টগ্রাম। ভোর ৪টা ৪০ মিনিটে সংগঠিত ভূমিকম্পের রিক্টর স্কেলে মাত্রা ছিল ৫.৮। এই সময়ে অনেকেই ঘুমে ছিলেন, আবার অনেকেই ফজরের নামাজ পড়ছিলেন।
তাৎক্ষণিকভাবে ভূমিকম্পের ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে কিছু জানা না গেলেও এর উৎপত্তিস্থল ভারতের মিজোরামে বলে জানা গেছে।

হাহাকার চট্টগ্রামের হাসপাতালে আইসিইউ ও অক্সিজেনের জন্য
                                  

বন্দর নগরী চট্টগ্রামে করোনা সংক্রমিত রোগী ৪ হাজার ছুঁই ছুঁই করলেও হাসপাতালগুলোতে শয্যা বাড়েনি সে তুলনায়। পাশাপাশি চলছে সঙ্কটাপন্ন রোগীদের জন্য আইসিইউ ও অক্সিজেনের হাহাকার। শয্যা সঙ্কটে নগরীর কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতালগুলো রোগীতে ঠাসা। পাশাপাশি রয়েছে সরকারি-বেসরকারি হাসপাতাল থেকে হতে রোগীদের ফিরিয়ে দেয়ার অভিযোগ। নিয়ন্ত্রণ নেই করোনা চিকিৎসাসহ সাধারণ ওষুধের মূল্য ও সরবরাহ ব্যবস্থায়ও। সবমিলিয়ে চট্টগ্রামের চিকিৎসা ব্যবস্থার বেহাল দশা ও বিপর্যস্ত চিত্রে চিকিৎসাপ্রার্থীদের মধ্যে এক দিকে আতঙ্ক চলছে, অন্য দিকে করোনায় মৃত্যুর মিছিল বাড়তে থাকায় চিকিৎসাবিহীন মৃত্যুর ভীতি ভর করছে জনমনে।

করোনা রোগীর সংখ্যা দ্রুত বাড়তে থাকায় লেজে গোবরে চিকিৎসা ব্যবস্থাপনায় অনেকটা অসহায় হয়ে পড়েছে চট্টগ্রামের মানুষ। দেশের বেশির ভাগ রাজস্বের জোগানদাতা হলেও চট্টগ্রামের মানুষকে বিনা চিকিৎসায় মারা যাওয়ার সংশয়ে থাকতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

 খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, চট্টগ্রামের ডেডিকেটেড কোভিড হাসপাতাল জেনারেল হাসপাতালের আইসিইউসহ সব সিট রোগীতে পরিপূর্ণ, বিআইটিআইডি ও ফিল্ড হাসপাতালও রোগীতে ঠাসা। জেনারেল হাসপাতাল থেকে কিছু রোগী রেলওয়ে হাসপাতাল এবং হলিক্রিসেন্ট হাসপাতালে স্থানান্তরের কথা বলা হলেও প্রতিদিন শনাক্ত হওয়া নতুন আক্রান্ত করোনা রোগীরা কোথায় যাবে তার কোনো কুল-কিনারা করতে পারছে না।

চিকিৎসা শয্যার পাশাপাশি চিকিৎসা সরঞ্জামাদিরও তীব্র সঙ্কট চলছে চট্টগ্রামের হাসপাতালগুলোতে। অতিসঙ্কটাপন্ন রোগীদের জন্য পর্যাপ্ত আইসিইউ (নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্র) নেই। অন্য দিকে আইসিইউ পরিচালনার জন্য পর্যাপ্ত প্রশিক্ষিত জনবলও নেই। খোদ চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালেই এখন পর্যন্ত কোভিড ডেডিকেটেড আইসিইউ নেই। ইতোমধ্যে বেশ কিছু আইসিইউ সমৃদ্ধ বেসরকারি ইমপেরিয়াল হাসপাতাল এবং ইউএসটিসির বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতাল সরকার কর্তৃক কোভিড হাসপাতাল হিসেবে ঘোষণা করা হলেও সেগুলো এখনো করোনা চিকিৎসায় নিয়োজিত হয়নি। জেলা সিভিল সার্জন অফিসের তথ্য মতে চট্টগ্রামে এখন পর্যন্ত কোভিড ডেডিকেটেড আইসিইউ শয্যা রয়েছে মাত্র ১০টি।

 করোনা আক্রান্ত রোগীদের একটি উল্লেখযোগ্য অংশের শ্বাসকষ্টের তীব্রতা বেড়ে গেলে জীবন বাঁচানোর জন্য অপরিহার্য হয়ে পড়ে কৃত্রিমভাবে অক্সিজেন সরবরাহের। কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতালগুলোতে বর্তমানে যতগুলো অক্সিজেন পয়েন্ট রয়েছে তার প্রতিটি একজনকে দেয়ার কথা থাকলেও এখন চার-পাঁচজনে ভাগাভাগি করে একেকটি অক্সিজেন পয়েন্ট ব্যবহার করার তথ্য মিলেছে। এক দিকে কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতালগুলো সিলিন্ডার নির্ভর অক্সিজেন রোগীদের দিতে গিয়ে হিমশিম অবস্থা, অন্য দিকে জীবন বাঁচানোর অনুষঙ্গ হিসেবে যারা বাসায় অক্সিজেন আনতে যাচ্ছেন তাদের অসাধু চক্রের কাছে জিম্মি হয়ে গুনতে হচ্ছে স্বাভাবিকের কয়েকগুণ মূল্য।

চিকিৎসা সরঞ্জামাদির সঙ্কটের পাশাপাশি চট্টগ্রামে ইতোমধ্যে ৮৩ জন চিকিৎসক গত দুই সপ্তাহে করোনা পজেটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন। এরই মধ্যে মারা গেছেন দুইজন চিকিৎসক। তা ছাড়া করোনা রোগীদের চিকিৎসাসেবায় নিয়োজিত চিকিৎসকেরা টানা এক সপ্তাহ দায়িত্ব পালন শেষে ১০ দিনের কোয়ারেন্টাইন থাকতে হচ্ছে। ফলে হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসক সঙ্কটও মারাত্মক আকার ধারণ করেছে।

 চট্টগ্রামের সরকারি-বেসরকারি উভয় ধরনের হাসপাতালের দ্বারে দ্বারে ঘুরেও করোনা উপসর্গবিহীন রোগীরাই চিকিৎসা না পাওয়ার অভিযোগ উঠছে প্রতিনিয়ত, করোনা উপসর্গ থাকলে তো কথাই নেই। নিজ চিকিৎসালয়ে চিকিৎসা না পাওয়ার কথা জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়েছেন খোদ একজন চিকিৎসক।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি এ প্রতিবেদককে বলেন, চট্টগ্রামে করোনা চিকিৎসায় এখন পর্যন্ত জেনারেল হাসপাতালের ১০টি আইসিইউ কার্যকর রয়েছে। এর বাইরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে করোনা ডেডিকেটেড পাঁচটি আইসিইউ বেড স্থাপনের চেষ্টা চালালেও আইসিইউর জন্য প্রশিক্ষিত জনবলের তীব্র সঙ্কট রয়েছে। এর বাইরে চমেকে যারা ডিউটি করেন একসপ্তাহ পর তাদের কোয়ারেন্টাইনে যেতে হচ্ছে। ফলে জনবলের সঙ্কট আরো তীব্রভাবে দেখা দিয়েছে। বেসরকারি হাসপাতালগুলোর আইসিইউ জনবলও অনেকটা চমেকের জনবলের ওপর নির্ভরশীল জানিয়ে তিনি বলেন, চমেকে যারা কাজ করেন তারাই সেখানকার ডিউটি শেষে বেসরকারি হাসপাতালের আইসিইউতে সময় দেন। ফলে বেসরকারি হাসপাতালগুলোও আইসিইউ জনবলের সঙ্কটে রয়েছে বলে তিনি জানান।

 জনগণের চিকিৎসা সুবিধা নিশ্চিতে সাধ্যমতো চেষ্টা চালানো হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, হলিক্রিসেন্ট হাসপাতাল ও রেলওয়ে হাসপাতালে আইসোলেশন সুবিধা চালু করা হয়েছে, সিটি হলেও আইসোলেশন সেন্টার চালু হচ্ছে। আইসোলেশন সেন্টার আরো বাড়ানোর ওপর জোর দেয়া হচ্ছে বলেও তিনি জানান।

চট্টগ্রামে এসআরবি বস্তিতে আগুন
                                  

চট্টগ্রামে এসআরবি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে প্রায় দুই শতাধিক ঘর পুড়ে ছাই হয়েছে।

খবর পেয়ে আগ্রাবদ, চন্দনপুরা, নন্দনকানন ও চকবাজার ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিটের ১৫টি গাড়ি ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় দেড় ঘণ্টার চেষ্টা চালিয়ে পৌনের ৭টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপ-সহকারী পরিচালক ফরিদ আহমেদ চৌধুরী জানান, ভোর ৫টা ১০ মিনিটের দিকে নগরীর মাঝিরঘাট এলাকায় নাহার বিল্ডিয়ের পাশে মাদারবাড়ির এসআরবি বস্তিতে আগুন লাগে।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিটের ১৫টি গাড়ি ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় দেড় ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে পৌনে ৭টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

ধারণা করা হচ্ছে, এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দুই শতাধিক পরিবার। খোলা আকাশের নিচে অবস্থান করছে নারী-শিশুসহ হাজারো মানুষ।

তবে এতে হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। তাৎক্ষণিকভাবে আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানা যায়নি।

চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপনির্বাচনে ২ নেতার মর্যাদার লড়াই চলছে
                                  

চট্টগ্রাম-৮ সংসদীয় আসনের উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে। আসনের ১৭০ কেন্দ্রের সবগুলোতেই ভোট হচ্ছে ইভিএমের (ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন) মাধ্যমে।

সাধারণ ভোটারদের অনাগ্রহ এবং প্রধান দুই প্রতিদ্বন্দ্বীর পাল্টাপাল্টি অভিযোগের পরই আজ হচ্ছে দুই প্রার্থীর মর্জাদার লড়াই।

নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন প্রধান দুই প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মোছলেম উদ্দিন আহমদ ও বিএনপির আবু সুফিয়ান।

এদিকে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের জন্য পুলিশের পাশাপাশি মোতায়েন করা হয়েছে বিজিবি ও র‌্যাব।

এ ছাড়া ১৬ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও দুই জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বিজিবির সঙ্গে মোবাইল টিমে রয়েছে।

এর আগে রোববার বিকাল থেকেই বিজিবি নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন স্থানে টহল শুরু করে।

গত বছরের ৭ নভেম্বর ভারতে চিকিৎসাধীন এই আসনের সংসদ সদস্য জাসদের কার্যকরী সভাপতি মঈনউদ্দীন খান বাদল মারা যাওয়ায় চট্টগ্রাম-৮ আসনটি শূন্য হয়। এর পর ১ ডিসেম্বর এ আসনে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

আসনটি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ৩, ৪, ৫, ৬ ও ৭নং ওয়ার্ড এবং বোয়ালখালী উপজেলার কধুরখীল, পশ্চিম ও পূর্ব গোমদণ্ডী, শাকপুরা, সারোয়াতলী, পোপাদিয়া, চরণদ্বীপ, আমুচিয়া ও আহলা করলডেঙ্গা ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত।

মোট ভোটার ৪ লাখ ৭৫ হাজার ৯৮৮। এর মধ্যে পুরুষ ২ লাখ ৪১ হাজার ৯২২ ও নারী ২ লাখ ৩৪ হাজার ৭৪ জন। শুধু বোয়ালখালী উপজেলায় ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৬৪ হাজার।

এদিকে সাধারণ ভোটাররা জানান, মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থী দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ ও বিএনপির প্রার্থী আবু সুফিয়ানের মধ্যে। এর বাইরে আরও চার প্রার্থী থাকলেও তাদের প্রচার তেমন নেই।

ওই চার প্রার্থী হলেন- বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ) চেয়ারম্যান এসএম আবুল কালাম আজাদ, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের সৈয়দ মোহাম্মদ ফরিদ আহমদ, স্বতন্ত্র প্রার্থী এমদাদুল হক ও ন্যাপের বাপন দাশগুপ্ত।

জেলা নির্বাচনী অফিসের কর্মকর্তারা জানান, প্রিসাইডিং অফিসারের নেতৃত্বে কর্মকর্তারা রোববার বিকালেই নির্বাচনী সামগ্রী নিয়ে কেন্দ্রে কেন্দ্রে যান। কেন্দ্রে ইভিএম পরিচালনায় কারিগরি সহযোগিতা করবেন সেনাসদস্যরা। প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে ৪-৫ জন পুলিশ ও ১১ জন আনসার সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন।

মোতায়েন করা হয়েছে ৫ প্লাটুন বিজিবি ও ৬ প্লাটুন র‌্যাব। এ ছাড়া ১৬ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও দুজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বিজিবির সঙ্গে মোবাইল টিমে রয়েছে।

সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মুনীর হোসাইন খান সোমবার বলেন, খুব সুন্দর নির্বাচনী পরিবেশ রয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা এলাকায় টহল দিচ্ছে।

ফেরত দিতে হবে ৯৫ লাখ টাকা
                                  

রাষ্ট্রীয় তেল বিপণন কোম্পানি যমুনা অয়েলের প্রধান স্থাপনা চট্টগ্রামের পতেঙ্গা থেকে দুটি জাহাজের ডিজেল লোপাটের ঘটনায় পাঁচ কর্মকর্তাকে ৯৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে বলেছে তদন্ত কমিটি। ১৩ মাস আগে প্রতিবেদনটি দাখিল করা হয়। কিন্তু যমুনা অয়েল কোম্পানি তদন্ত প্রতিবেদনের আলোকে কার্যকর কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

তদন্ত প্রতিবেদন সূত্রে জানা গেছে, অভিযুক্ত পাঁচ কর্মকর্তাকে ৯৪ লাখ ৯৪ হাজার ৬৪৪ টাকা ফেরত দিতে বলা হয়। গত বছরের ১১ নভেম্বর প্রতিবেদন দাখিল হলেও কোম্পানি তা বোর্ড সভায় উপস্থাপন করেনি। ফলে প্রায় ৯৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ আদায়ের বিষয়টি ঝুলে আছে।

জানতে চাইলে যমুনা অয়েল কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. গিয়াস উদ্দিন আনচারী, ক্ষতিপূরণ আদায়ের সুপারিশ–সংক্রান্ত তদন্ত প্রতিবেদন কোম্পানির পরবর্তী পর্ষদ সভায় উপস্থাপন করা হবে। পর্ষদ এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।

তদন্ত প্রতিবেদনে যমুনার সহকারী মহাব্যবস্থাপক (টার্মিনাল) নুরুদ্দীন আহমেদ আল মাসুদ এবং সহকারী ব্যবস্থাপক (অপারেশন) মোহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাকের সাড়ে ৩২ শতাংশ করে দায় অনুপাতে প্রত্যেককে ৩০ লাখ ৮৬ হাজার টাকা, সহকারী ব্যবস্থাপক প্রিয়তোষ নন্দী ২০ শতাংশ হারে ১৮ লাখ ৯৯ হাজার টাকা, জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা সমীর কুমার পালের ১০ শতাংশ অনুপাতে ৯ লাখ ৪৯ হাজার এবং জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা মো. নুরুল আলমের ৫ শতাংশ অনুপাতে ৪ লাখ ৭৫ হাজার টাকা দিতে বলা হয়েছে।

তদন্ত কমিটির পাঁচ সদস্য হলেন, যমুনার মহাব্যবস্থাপক মো. আইয়ুব হোসেন, কাজী মো. মনজুর রহমান, দুই উপমহাপব্যবস্থাপক হলেন মোহাম্মদ খসরু আজাদ ও মো. নাজমুল হক এবং ব্যবস্থাপক (মানবসম্পদ) মো. ইজাজুর রহমান। তাঁরা সর্বসম্মতভাবে প্রতিবেদন দাখিল করেছিলেন।

২০১৭ সালের ২৫ অক্টোবর চট্টগ্রামের পতেঙ্গা স্থাপনা থেকে দুটি জাহাজে করে খুলনার দৌলতপুর এবং নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় যমুনার ডিপোতে জ্বালানি সরবরাহের সময় ১ লাখ ৫১ হাজার ৬৮২ লিটার ডিজেল পাচারের ঘটনা ঘটে। ওই সময় খুচরা বাজারে প্রতি লিটার ডিজেলের মূল্য ছিল ৬৫ টাকা। ওই ডিজেল চুরির ঘটনায় সরকারের ৯৮ লাখ ৫৯ হাজার ৩৩০ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

দুটি জাহাজে মোট ৩৮ লাখ ৪২ হাজার ৯৫২ লিটার ডিজেল ভরা হয়। কিন্তু কাগজে-কলমে দেখানো হয় ৩৬ লাখ ৯১ হাজার ২৭০ লিটার। অর্থাৎ ১ লাখ ৫১ হাজার ৬৮২ লিটার ডিজেল বেশি তোলা হয় জাহাজ দুটিতে। পতেঙ্গার প্রধান স্থাপনায় সংরক্ষিত রেজিস্টারে (ডিপ বুক) এবং দুটি জাহাজের চালানে (লোডিং স্লিপ) দুই রকম তথ্য উল্লেখ থাকায় বিষয়টি ধরা পড়ে।

জ্বালানি তেলবাহী জাহাজ এম টি মনোয়ারায় করে ফতুল্লায় এবং এম টি রাইদায় করে খুলনার দৌলতপুরে যমুনার দুটি ডিপোতে ২০১৭ সালের ২৫ অক্টোবর ডিজেল পাঠানো হয়। মনোয়ারা জাহাজে সংরক্ষিত চালানের (লোডিং স্লিপ) তথ্য অনুযায়ী, এতে ১৮ লাখ ৩০ হাজার ৩৬৬ লিটার ডিজেল ভরা হয়। কিন্তু পতেঙ্গার প্রধান কার্যালয়ে সংরক্ষিত ডিপ স্লিপে জাহাজটিতে ১ লাখ ৭৮২ লিটার ডিজেল কম দেখানো হয়। একই রকম জালিয়াতির ঘটনা ঘটে এম টি রাইদা জাহাজে। এই জাহাজে তোলা হয় ২০ লাখ ১২ হাজার ৫৮৬ লিটার ডিজেল। কিন্তু ডিপ বুকে ৫০ হাজার ৯০০ লিটার ডিজেল কম দেখানো হয়। ওই সময় রাইদা জাহাজ থেকে পথে পথে বিক্রি করা আট হাজার লিটার ডিজেল র‍্যাব জব্দ করে।

চট্টগ্রামে ইয়াবা ব্যবসার অভিযোগে পুলিশের এসআই বরখাস্ত
                                  

                                               অভিযুক্ত পুলিশ কর্মকর্তা খন্দকার সাইফ উদ্দিন

 

চট্টগ্রামে ইয়াবা ব্যবসার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে এক পুলিশ কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তাঁর নাম খন্দকার সাইফ উদ্দিন। তিনি নগরের বাকলিয়া থানায় উপপরিদর্শক (এসআই) হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সাইফ উদ্দিনকে নগর পুলিশ কমিশনারের নির্দেশে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। কিন্তু বাকলিয়া থানা-পুলিশের সহযোগিতায় সাইফ পলাতক হয়ে যান বলে অভিযোগ উঠেছে।

গতকাল সোমবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে নগরের বাকলিয়া থানার পশ্চিম বাকলিয়া এলাকার একটি বাসা থেকে ৪ হাজার ১০০ ইয়াবা বড়ি জব্দ করে র‍্যাব। এ সময় পুলিশের সোর্স নাজিম উদ্দিন ওরফে মিল্লাতকে গ্রেপ্তার করা হয়। পাশাপাশি ওই বাসা থেকে পুলিশের ইউনিফর্ম, মাদক বিক্রির ২ লাখ ৩১ হাজার টাকা এবং একটি মোটরসাইকেলও জব্দ করা হয়। র‍্যাব বলছে, সাইফ ওই বাসাটি ভাড়া নিয়ে ইয়াবা ব্যবসা করতেন। তবে তিনি পরিবার নিয়ে অন্য জায়গায় থাকতেন।

এ ঘটনায় র‍্যাব-৭ চট্টগ্রামের উপসহকারী পরিচালক নাজমুল হুদা বাদী হয়ে মঙ্গলবার বিকেলে বাকলিয়া থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেন। এতে গ্রেপ্তার নাজিম ও পলাতক এসআই সাইফকে আসামি করা হয়।

চট্টগ্রাম নগর পুলিশের উপকমিশনার (দক্ষিণ) এস এম মোস্তাইন হোসেন বলেন, মামলার আসামি হওয়ায় বাকলিয়া থানার এসআই সাইফকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করার জন্য তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে। তাঁকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছে পুলিশ।

পুলিশের একটি সূত্রে জানা গেছে, এসআই সাইফ গতকাল সোমবার রাতে বাকলিয়া থানা-পুলিশের হেফাজতে ছিলেন। আজ সকালে তিনি অসুস্থ দাবি করলে তাঁকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনা হয় চিকিৎসার জন্য। সেখান থেকে তিনি কৌশলে পালিয়ে যান। কিন্তু পুলিশের আরেকটি সূত্র বলছে, বাকলিয়া থানা-পুলিশ সাইফকে পালানোর সুযোগ করে দিতে চট্টগ্রাম মেডিকেলে নিয়ে গিয়েছিল। বিষয়টি জানার পর নগর পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সাইফকে ধরতে অভিযান শুরু করে।

এ বিষয়ে বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রণব কুমার চৌধুরী সন্ধ্যায় বলেন, বুকে ব্যথা হওয়ায় এসআই সাইফকে চট্টগ্রাম মেডিকেলে ফোর্স দিয়ে পাঠানো হয়েছে। কীভাবে পালিয়েছে জানেন না। বাসা ভাড়া নিয়ে ইয়াবা ব্যবসা করার বিষয়টিও তাঁর জানা নেই।

র‍্যাব সূত্রে জানা গেছে, বাকলিয়ার ওই বাসাটি দেড় বছর আগে ভাড়া নেন সাইফ। তিনি বাকলিয়া, চাক্তাই এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে ধরা পড়া ব্যক্তিদের বেশির ভাগের বিরুদ্ধে মামলা না দিয়ে টাকা নিয়ে ছেড়ে দিতেন। পরে ওই ইয়াবাগুলো বাসায় রাখতেন। এরপর গ্রেপ্তার নাজিম ‘পুলিশের হয়ে’ এগুলো বিক্রি করতেন।

এর আগে ১২ জুলাই দ্বিতীয়বারের মতো ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার হন চট্টগ্রাম নগরের বাকলিয়া থানায় সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. রেদোয়ান। সেদিন নগর গোয়েন্দা পুলিশ তাঁর কাছ থেকে এক হাজার ইয়াবা বড়ি জব্দ করে। এর আগে রেদোয়ান ২০১৬ সালের ২৬ নভেম্বর নগরের কোতোয়ালি থানার সরকারি সিটি কলেজের ফটকের সামনে ১ হাজার ৭০০ ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার হয়েছিলেন। সেদিন একটি ব্যক্তিগত গাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে রেদোয়ানকে ওই ইয়াবাসহ পাওয়া যায়। ওই ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় করা মামলায় অভিযোগপত্র দেওয়া হয়েছে। এখনো এর বিচার শেষ হয়নি। ওই মামলায় ছয় মাস কারাভোগ করে জামিনে বের হয়েছিলেন রেদোয়ান। এরপর আবার তিনি ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার হলেন। বর্তমানে তিনি কারাগারে রয়েছেন। ২০১৬ সালের ঘটনায় রেদোয়ান এখন পর্যন্ত বরখাস্ত আছেন।

রোহিঙ্গাদের দেখতে কক্সবাজার পৌঁছেছেন ৪০ দেশের প্রতিনিধি
                                  

অনলাইন ডেস্ক : মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের অবস্থা দেখতে বিশ্বের ৪০টি দেশের প্রতিনিধি কক্সবাজারে গেছেন।

আজ বুধবার দুপুর ১২টার দিকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মোহাম্মদ আলীর নেতৃত্বে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, উপরাষ্ট্রদূতদের প্রতিনিধিদল কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার কুতুপালং শরণার্থী ক্যাম্পে পৌঁছায়।

এর আগে বেলা ১১টার দিকে প্রতিনিধি দলকে বহনকারী বিশেষ বিমানটি কক্সবাজার বিমানবন্দরে পৌঁছালে স্থানীয় সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল প্রতিনিধিদলকে স্বাগত জানান।

সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার জানান, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলে ইইউ, জাতিসংঘসহ বিশ্বের ৪০টি দেশের রাষ্ট্রদূত, উপরাষ্ট্রদূত ও প্রতিনিধিরা রয়েছেন। বিমানবন্দরে থেকে প্রতিনিধি দলকে উখিয়া কুতুপালং শরণার্থী ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখানে তারা মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের অবস্থা পর্যবেক্ষণ করবেন।

পেকুয়ায় চার ভাইসহ যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার
                                  
কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলায় এক যুবলীগ নেতা ও তার চার ভাইকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। 
 
আজ রবিবার ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে পেকুয়া সদরের বাড়িতে র‌্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্পের একটি দল অভিযান চালায়। গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে অস্ত্র, গুলি, মাদক উদ্ধার করা হয়েছে বলে র‌্যাব জানিয়েছে।
 
গ্রেফতারকৃতরা হলেন- পেকুয়া উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও কক্সবাজার জেলা পরিষদের সদস্য জাহাঙ্গীর আলম (৪৫), তার ভাই মোহাম্মদ আলমগীর (৪২), মোহাম্মদ আজম (৪০), মোহাম্মদ কাইয়ুম (৩৮) ও ওসমান সরওয়ার বাপ্পী (২৪)।
৩ লাখ ইয়াবাসহ ৬ মিয়ানমার নাগরিক আটক
                                  
টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি : কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে তিন লাখ ইয়াবাসহ ছয় মিয়ানমার নাগরিককে আটক করেছে কোস্টগার্ড। বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে চারটার দিকে ছেঁড়াদ্বীপে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয় বলে জানিয়েছেন কোস্টগার্ড টেকনাফ স্টেশনের কন্টিনজেন্ট কমান্ডার জাফর ইমাম সজীব।
 
জাফর ইমাম সজীব বলেন, মিয়ানমারের দিক থেকে ইঞ্জিনচালিত একটি নৌকায় করে তারা আসছিল। তাদের থামার সংকেত দিলে তারা সংকেত অমান্য করে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে ধাওয়া করে ছয় রোহিঙ্গাকে আটক করা হয়। নৌকায় তল্লাশি করে পাওয়া গেছে তিন লাখ ইয়াবা। জব্দ করা হয়েছে তাদের নৌকাটি।
 
তিনি জানান, আটককৃতদের বিরুদ্ধে টেকনাফ থানায় মামলা করা হবে।
চট্টগ্রাম নগরির ইপিজেড থানার বন্দরটিলা শাহ প্লাজা দোকান সমিতির ঈদ বিক্রয় উৎসবের ড্র সম্পন্ন মোটর সাইকেল সহ ৫১টি পুরস্কার
                                  

চট্টগ্রাম সংবাদদাতা : চট্টগ্রাম নগরীর ইপিজেড থানা বন্দরটিলা শাহ প্লাজা দোকান মালিক কল্যাণ সমিতি ঈদ বিক্রয় উৎসব-২০১৭ এর কুপন ড্র অনুষ্ঠান গত ২০ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৫টায় মার্কেট প্রাঙ্গণে সভাপতি মোঃ শাহজাহান (সাজু) এর সভাপতিত্বে সম্পন্ন হয়। এতে ঈদ বিক্রয় কুপন ড্র অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন শাহ প্লাজা মার্কেট ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহ রিয়াজ রুবেল। সমাজ কর্মী মো. নাছির উদ্দিনের উপস্থাপনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রাক্তন সভাপতি আব্দুল বাতেন, সাধারণ সম্পাদক- মোঃ ফারুখ হোসেন মিঠুন, সাংগঠনিক সম্পাদক- ওসমান গনি, অর্থ সম্পাদক মোঃ হাসান ইমাম মনি। ঈদ বিক্রয় উৎসব কমিটির আহবায়ক মোঃ ফরিদুল আলম মিন্টু, যুগ্ম আহবায়ক-হুমায়ুন কবির খোকন সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও বিপুল সংখ্যক দর্শক ড্র অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ড্রতে ৫১টি কুপনের নম্বর একে একে উম্মুক্ত ভাবে তুলেন। ড্রতে ১ম থেকে দশটি নম্বর হল যথাক্রম- ১ম পুরস্কার ১টি মোটর সাইকেল (কুপন নং) ১১৮৬৭৬, ২য় ফ্রিজ নং-১৪৩৩৪০, ৩য় ২১ ইঞ্চি রঙ্গিন টিভি নং- ১১১৫০৯,র ৪র্থ-কালার টিভি নং- ৮২৯৩০, ৫ম-মোবাইল সেট নং-৭৬৬৪৮, ৬ষ্ঠ রাইচ কুকার নং-২১৩৯৪৬, ৭ম টোষ্টার নং-১০৪৭৯২, ৭ম ব্লেন্ডার নং-৫০৯২৮, ৯ম টেবিল ফ্যান নং-৩৭২৮৬ এবং ১০ম আয়রন নং- ২৩২২৩২। এছাড়া বাকী সকল নম্বর শাহ প্লাজা মার্কেট সংলগ্ন বিল বোর্ডে প্রর্দশন সহ রিফলেট আকারে বিলি হচ্ছে বলে সমিতির দপ্তর সম্পাদক এক প্রেসর্বাতায় জানান। আগামী ৩০ জুলাই এর মধ্যে কুপনের মূল অংশ ও এক কপি পিপি সাইজ ছবি সহ সমিতির অফিসে যোগাযোগ করতে বলা হচ্ছে।

চট্টগ্রামে ভারতীয় শিক্ষার্থীর রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার
                                  
চট্টগ্রামের আকবর শাহ থানা এলাকায় এক ভারতীয় শিক্ষার্থীর রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তার আরেক স্বদেশি সহপাঠীকে।
 
নিহত ছাত্র হলেন, ইউএসটিসির এমবিবিএস চতুর্থ বর্ষের আসিফ শেঠ (২৬)। একই ব্যাচের অপর ছাত্র উইলিয়ামসন সিং (২৫)। দুজনই ভারতের মণিপুর রাজ্যের বাসিন্দা বলে জানিয়েছে পুলিশ।
 
শুক্রবার দিবাগত রাত একটার দিকে নগরের আবদুল হামিদ সড়কের একটি বাড়ি থেকে আসিফ শেঠ নামে ওই শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশের শরীরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাতের চিহ্ন ছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ। ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার উইসন সিং চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
 
আকবর শাহ থানার ওসি আলমগীর মাহমুদ জানান, চট্টগ্রাম নগরের আবদুল হামিদ সড়কের একটি বাড়ির পঞ্চম তলার একটি ফ্ল্যাটে থাকতেন ইউএসটিসির ভারতীয় চার শিক্ষার্থী। ফ্ল্যাটের তিনটি কক্ষের মধ্যে একটিতে থাকতেন নিহত আসিফ শেঠ। আরেকটিতে উইসন। আরেকটি কক্ষে নীরাজ গুরু তার স্ত্রী জোৎস্নাকে নিয়ে থাকতেন। শুক্রবার রাতে ফ্ল্যাটে সবাই একসঙ্গে বসে গল্প করেন ও মদ্যপান করেন। এরপর নীরাজ তার স্ত্রীকে নিয়ে নিজের কক্ষে চলে যান। আসিফ, উইসনের কক্ষে যান। রাত সাড়ে ১২টার দিকে উইসনের কক্ষ অন্ধকার দেখে নীরাজ বারবার ধাক্কা দিতে থাকেন। কিন্তু ভেতর থেকে কোনো সাড়াশব্দ পাননি। পরে বিকল্প চাবি দিয়ে দরজা খোলেন। দরজা খুলে নীরাজ দেখতে পান, বাসার ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় আছেন উইসন। আর মেঝেতে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছেন আসিফ শেঠ।
টানা বৃষ্টিতে চট্টগ্রামের নিম্নাঞ্চল ডুবে গেছে
                                  

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : রোববার রাত থেকে টানা বৃষ্টিতে চট্টগ্রাম মহানগরীর নিম্নাঞ্চল ডুবে গেছে।

নগরীর আগ্রাবাদ, সিডিএ আবাসিক, শান্তিবাগ, হালিশহর, ছোটপুল, চকবাজার, বাকলিয়া, কাতালগঞ্জ, দুই নম্বর গেট এলাকার কোথাও হাঁটু পানি, আবার কোথাও কোমর পানি জমে গেছে। এতে মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েছেন।

চট্টগ্রাম আবহাওয়া অধিদপ্তরের কর্মকর্তা মাসুদুল আলম বলেন, বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপের কারণে চট্টগ্রামে বৃষ্টিপাত হচ্ছে।  সোমবার বেলা ১১টা পর্যন্ত ১৩১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। আরো কয়েকদিন বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

নিখোঁজ ব্যক্তিদের সন্ধানে আবার উদ্ধার অভিযান শুরু
                                  

রাঙামাটি প্রতিনিধি : পাহাড়ধসে নিখোঁজ হওয়া ব্যক্তিদের সন্ধানে আজ বুধবার সকাল থেকে আবার উদ্ধার অভিযান শুরু হয়েছে। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া ও দুর্গম যোগাযোগব্যবস্থার কারণে গতকাল মঙ্গলবার রাত আটটার সময় উদ্ধার কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়। আজ সকাল সাড়ে আটটা থেকে শুরু হওয়া উদ্ধার অভিযানে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন স্থানীয় লোকজনও।

চট্টগ্রাম, রাঙামাটি ও বান্দরবানের বিভিন্ন স্থানে পাহাড়ধসে অন্তত ১২৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বড় বিপর্যয় ঘটেছে রাঙামাটিতে। সেখানে পাহাড়ধসে মারা গেছেন ৯৮ জন। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন সেনাবাহিনীর দুই কর্মকর্তা ও দুই সৈনিক। পাহাড়ধসে বন্ধ হয়ে যাওয়া রাঙামাটি-চট্টগ্রাম সড়ক চালু করতে গিয়ে প্রাণ হারান তাঁরা। চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় ২১ জন ও চন্দনাইশ উপজেলায় ৩ জন এবং বান্দরবানে পাহাড়ধসে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত সোমবার মধ্যরাত ও গতকাল ভোরে পাহাড়ধসে তাঁরা মারা যান।

রাঙামাটি শহরের বিভিন্ন এলাকায় পাহাড়ধস শুরু হয় গতকাল ভোর ৫টা থেকে। এরপর বেলা ১১টা পর্যন্ত ছয় ঘণ্টায় শহরের ভেদভেদি, রাঙ্গাপানি, যুব উন্নয়ন, টিভি স্টেশন, রেডিও স্টেশন, রিজার্ভ বাজার, মোনঘর, শিমুলতলি ও তবলছড়ি এলাকায় পাহাড়ধসের ঘটনা ঘটে। আজ সকাল নয়টার দিকে ঘটনাস্থলের দিকে ফায়ার সার্ভিসের দুটো গাড়িকে যেতে দেখা গেছে।

রাঙামাটির জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মানজারুল মান্নান বলেন, গতকাল প্রতিকূল পরিস্থিতির কারণে রাত আটটায় উদ্ধার কার্যক্রম বন্ধ করা হয়। আজ সকাল সাড়ে আটটা থেকে আবার উদ্ধার অভিযান শুরু হয়েছে। এখনো অনেক ব্যক্তি নিখোঁজ রয়েছেন। প্রাণহানি আরও বাড়তে পারে বলে তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

রাঙামাটিতে পাহাড় ধসে নিহত ১৩
                                  

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি : রাঙামাটি শহর ও বিভিন্ন উপজেলায় প্রবল বর্ষণের ফলে পাহাড় ধসে গতরাত ও  মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত অন্তত ১৩ জন নিহত হয়েছেন ।


সকালে শহরের যুব উন্নয়ন, ভেদভেদী, শিমুলতলি, রাঙাপানিসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে পাহাড় ধসের খবর আসতে থাকে। সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত রাঙামাটি শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে রাঙামাটি সদর হাসপাতালে ১১ জনের লাশ এসেছে। বিভিন্ন স্থানে ঘরের ওপর পাহাড় ধসের ঘটনায় নিহত হয়েছেন তারা।

নিহতরা হলেন- রুমা আক্তার, নুরিয়া আক্তার, হাজেরা বেগম, সোনালি চাকমা, অমিত চাকমা, আইয়ুশ মল্লিক, লিটন মল্লিক ও চুমকি দাশ। তাৎক্ষণিকভাবে বাকি তিনজনের নাম জানা যায়নি। 

একই সময়ে কাপ্তাই উপজেলার রাইখালি ইউনিয়নের কারিগরপাড়া এলাকায় মাটিচাপা পড়ে উনু চিং মারমা ও নিকি মারমা মারমা নামের দুইজন নিহত হয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন রাইখালি ইউপি চেয়ারম্যান ছায়ামং মারমা।

অন্যদিকে কাপ্তাই উপজেলার নতুন বাজার এলাকায় গাছ চাপা পড়ে আবুল হোসেন (৪৫) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন এবং ইকবাল নামের এক ব্যক্তি কর্ণফুলি নদীতে নিখোঁজ হয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কাপ্তাই উপজেলা চেয়ারম্যান দিলদার হোসেন।

এদিকে প্রবল বর্ষণে রাঙামাটি শহরের বিভিন্ন স্থানে মাটিচাপা পড়েছে অসংখ্য মানুষ। ফায়ার সার্ভিসের রাঙামাটি টিমকে সহযোগিতা করতে চট্টগ্রামের হাটহাজারি থেকেও বাড়তি ইউনিট আসছে বলে জানিয়েছেন ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তারা। রাঙামাটি শহরে মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা।

রাঙামাটির কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহম্মদ রশীদ জানিয়েছেন,  মৃতের সংখ্যা আরো  বাড়তে পারে। অনেক স্থানেই এখনো মানুষ মাটি চাপা পড়ে আছে।

কক্সবাজার-চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম করছে মোরা
                                  

বিশ্ব মানচিত্র চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার; টেকনাফ রিপোর্ট : ঘূর্ণিঝড় মোরা আজ মঙ্গলবার সকাল ছয়টার দিক থেকে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম করতে শুরু করে। সকাল সাড়ে সাতটার দিকে এটি কক্সবাজার উপকূল অতিক্রম করে চট্টগ্রামের দিকে অগ্রসর হয়। সকাল ১০টায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ঘূর্ণিঝড়টি চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম করছিল।

সকাল ১০টার দিকে চট্টগ্রাম জেলার দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ বলেন, সকাল পৌনে আটটার দিক থেকে শুরু হওয়া ঝোড়ো হাওয়া, দমকা বাতাসসহ বৃষ্টি অব্যাহত আছে। এখন পর্যন্ত কোনো ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি।

চট্টগ্রামের পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিসের কর্তব্যরত আবহাওয়াবিদ মিরাজ হোসেন সকাল ১০টার দিকে বলেন, এখনো চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম করছে ঘূর্ণিঝড়টি। বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ৮০ থেকে ১১০ কিলোমিটার। ঘূর্ণিঝড়টি যখন চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম শুরু করে, তখন ভাটা ছিল। এ কারণে ক্ষয়ক্ষতি কম হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে সকাল সোয়া ১০টা থেকে জোয়ারের সময়।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের সর্বশেষ (১৬ নম্বর) বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় মোরা উত্তর দিকে অগ্রসর হয়ে সকাল ছয়টার দিকে কুতুবদিয়ার কাছ দিয়ে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম শুরু করেছে। এটি আরও উত্তর দিকে অগ্রসর হতে পারে। ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় ও সমুদ্রবন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝোড়ো হাওয়া ও বৃষ্টি অব্যাহত থাকতে পারে।

ওই বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৬৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৮৯ কিলোমিটার, যা দমকা বা ঝোড়ো হাওয়া আকারে ১১৭ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর ও কক্সবাজার উপকূলকে ১০ নম্বর মহা বিপৎসংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

কক্সবাজারের ঘূর্ণিঝড় নিয়ন্ত্রণকক্ষ থেকে সকাল আটটার দিকে জানানো হয়েছে, ঘূর্ণিঝড় মোরা সকাল সাড়ে সাতটার দিকে কক্সবাজার উপকূল অতিক্রম করে। এর প্রভাবে সেন্ট মার্টিন ও টেকনাফে ক্ষয়ক্ষতি বেশি হয়েছে। ঝড়ে এসব এলাকায় বাড়িঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। ভেঙে পড়েছে বহু গাছপালা।

সেন্ট মার্টিন দ্বীপের ইউপির সদস্য হাবিবুর রহমান খান বলেন, ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে ভোররাত চারটার পর থেকে সেন্টমার্টিন লন্ডভন্ড হতে শুরু করে। ছয়টা নাগাদ সেন্ট মার্টিনের দুই শতাধিক বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে তিনি জানতে পেরেছেন। এর মধ্যে বেশি রয়েছে কাঁচা ঘর। আধা পাকা ঘরবাড়িও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বেশির ভাগ ঘরের চালা উড়ে গেছে। এ ছাড়া বহু গাছপালা বিধ্বস্ত হয়েছে। যাঁরা আশ্রয়কেন্দ্র, হোটেলসহ বিভিন্ন স্থানে আশ্রয় নিয়েছেন, তাঁরা সবাই খুবই আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন। তাঁরা বলছেন, এর আগে কখনো এমন ভয়াবহ ঝড় দেখেননি।

সীতাকুণ্ডে মাইক্রোবাস পুকুরে পড়ে নিহত ৩
                                  

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলায় বাঁশবাড়িয়ায় একটি মাইক্রোবাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পুকুরে পড়ে পথচারী নারীসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরও ছয়জন। আজ শনিবার সকাল পৌনে সাতটার দিকে বাঁশবাড়িয়ায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন চট্টগ্রাম নগরের চাঁন্দগাও থানার পূর্ব ষোলশহর গ্রামের মো. নাছের (৬০), হাটহাজারী থানার বালুছড়া গ্রামের মো. সোলেমান (৬০) ও বাঁশবাড়িয়া এলাকার মনিকা রানী দাস (৪০)। মো. নাসের ও মো সোলেমান মাইক্রোবাস যাত্রী ও মনিকা রানী দাস পথচারী ছিলেন। আহত ব্যক্তিদের পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

নিহত নাছেরের ভাই এম এ হামিদ বলেন, তাঁরা পরিবারের সদস্যদের নিয়ে দুটি মাইক্রোবাসযোগে মিরসরাইয়ের বারইয়ারহাটের শান্তিরহাট এলাকায় এক আত্মীয়ের জানাজায় অংশ নিতে যাচ্ছিলেন। আজ ভোরের দিকে তাঁরা চট্টগ্রাম নগরের ষোলোশহর এলাকা থেকে রওনা হন। হামিদ ও তাঁর ভাই নাছের আলাদা মাইক্রোবাসে ছিলেন। তিনি (হামিদ) পেছনের মাইক্রোবাসে ছিলেন। পথে সকাল পৌনে সাতটার দিকে বাঁশবাড়িয়ায় চম্পা রোলিং মিলসের সামনে এসে সামনের মাইক্রোবাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশের খাদে পড়ে যায়। স্থানীয় লোকজন ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে এসে আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করেন।

কুমিরা ফায়ার সার্ভিসের জ্যেষ্ঠ স্টেশন কর্মকর্তা আবদুল্লাহ পাশা হারুন বলেন, খবর পেয়ে তাঁরা ঘটনাস্থলে যান। তাঁরা একজন পথচারী নারী ও দুই যাত্রীর মৃতদেহ উদ্ধার করেন। আহত অবস্থায় উদ্ধার করেন এক শিশুসহ ছয়জনকে।

কুমিরা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) মো. মনিরুজ্জামান বলেন, দুর্ঘটনাকবলিত গাড়িটি উদ্ধার করা হয়েছে। আহত ছয় যাত্রীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।


   Page 1 of 13
     চট্রগ্রাম
৫ দশমিক ৮ রিক্টার মাত্রার ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল বন্দরনগরী
.............................................................................................
হাহাকার চট্টগ্রামের হাসপাতালে আইসিইউ ও অক্সিজেনের জন্য
.............................................................................................
চট্টগ্রামে এসআরবি বস্তিতে আগুন
.............................................................................................
চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপনির্বাচনে ২ নেতার মর্যাদার লড়াই চলছে
.............................................................................................
ফেরত দিতে হবে ৯৫ লাখ টাকা
.............................................................................................
চট্টগ্রামে ইয়াবা ব্যবসার অভিযোগে পুলিশের এসআই বরখাস্ত
.............................................................................................
রোহিঙ্গাদের দেখতে কক্সবাজার পৌঁছেছেন ৪০ দেশের প্রতিনিধি
.............................................................................................
পেকুয়ায় চার ভাইসহ যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার
.............................................................................................
৩ লাখ ইয়াবাসহ ৬ মিয়ানমার নাগরিক আটক
.............................................................................................
চট্টগ্রাম নগরির ইপিজেড থানার বন্দরটিলা শাহ প্লাজা দোকান সমিতির ঈদ বিক্রয় উৎসবের ড্র সম্পন্ন মোটর সাইকেল সহ ৫১টি পুরস্কার
.............................................................................................
চট্টগ্রামে ভারতীয় শিক্ষার্থীর রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
টানা বৃষ্টিতে চট্টগ্রামের নিম্নাঞ্চল ডুবে গেছে
.............................................................................................
নিখোঁজ ব্যক্তিদের সন্ধানে আবার উদ্ধার অভিযান শুরু
.............................................................................................
রাঙামাটিতে পাহাড় ধসে নিহত ১৩
.............................................................................................
কক্সবাজার-চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম করছে মোরা
.............................................................................................
সীতাকুণ্ডে মাইক্রোবাস পুকুরে পড়ে নিহত ৩
.............................................................................................
মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা উপকরণ ও রেজিষ্ট্রেশন ফি -জেলা পরিষদ থেকে দেয়া হবে
.............................................................................................
জঙ্গিবাদ ও মাদক নির্মূলসহ অপরাধ দমনে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে-সাঈদ তারিকুল হাসান
.............................................................................................
প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমি ডিজি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত
.............................................................................................
তলপেটে লুকানো ১২ সোনার বার
.............................................................................................
ভয়াল সেই ২৯ এপ্রিল আজ
.............................................................................................
চট্টগ্রামে ৭ কেজি সোনাসহ যাত্রী আটক
.............................................................................................
বৈশাখের দেয়ালচিত্রে দুর্বৃত্তের পোড়া মোবিল
.............................................................................................
চট্টগ্রামের সন্দ্বীপে নৌকাডুবির ঘটনায় ৪ লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সদস্য মাহমুদ হাসানের ইন্তেকাল
.............................................................................................
সীতাকুণ্ডের ছয় জঙ্গির চারজনই আত্মীয়
.............................................................................................
সীতাকুণ্ডের সেই শিশুটি থানা হেফাজতে
.............................................................................................
সীতাকুণ্ডে বাড়ি ঘিরে অভিযানে চার জঙ্গি নিহত
.............................................................................................
‘ছায়ানীড়’ থেকে ১৮ বাসিন্দাকে উদ্ধার
.............................................................................................
সীতাকুণ্ডে দুই ‘জঙ্গি আস্তানার’ সন্ধান, শিশুসহ দম্পত্তি আটক
.............................................................................................
মিতু হত্যা: তদন্ত কর্মকর্তার সঙ্গে সাক্ষাতে নিহত আকরামের বোন
.............................................................................................
চট্টগ্রামে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত
.............................................................................................
চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে স্বর্ণের বারসহ আটক ১
.............................................................................................
পুলিশের ওপর হামলাকারীদের বাড়িতে ২৯টি গ্রেনেড
.............................................................................................
মিরসরাইয়ের একটি বাড়িতে অভিযান চলছে পুলিশের
.............................................................................................
চট্টগ্রামে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ শিশুর মৃত্যু
.............................................................................................
প্রেমে রাজি না হওয়ায় মাদরাসাছাত্রীকে কুপিয়েছে শিবিরকর্মী
.............................................................................................
চট্টগ্রামে এক তরুণ খুন
.............................................................................................
চকরিয়ায় মাইক্রো উল্টে নিহত ৪
.............................................................................................
চট্টগ্রাম বন্দরে মেশিনারিজ গুদামে আগুন
.............................................................................................
মিরসরাইয়ে কাভার্ড ভ্যান-চাপায় ৩ নারী নিহত
.............................................................................................
রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ নিয়ে মালয়েশীয় জাহাজ চট্টগ্রামে
.............................................................................................
চট্টগ্রামে বিয়ের বাস উল্টে নারী নিহত
.............................................................................................
চট্টগ্রামে শুটকি পট্টিতে আগুন
.............................................................................................
চকরিয়ায় বাস-মাইক্রো সংঘর্ষে পুলিশ সদস্য নিহত
.............................................................................................
চট্টগ্রামে কাভার্ড ভ্যানের চাপায় ৩ বন্ধু নিহত
.............................................................................................
রাউজানে ৯ বসতঘর পুড়ে ছাই
.............................................................................................
চট্টগ্রামে কাভার্ড ভ্যানের চাপায় দুই ছাত্রলীগ কর্মী নিহত
.............................................................................................
হত্যার অভিযোগ পরিবারের
.............................................................................................
চট্টগ্রামে অপহৃত স্কুলছাত্র উদ্ধার, গ্রেপ্তার ৪
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: মো: হাবিবুর রহমান সিরাজ
আইন উপদেষ্টা : অ্যাড. কাজী নজিব উল্লাহ্ হিরু
সম্পাদক ও প্রকাশক : অ্যাডভোকেট মো: রাসেদ উদ্দিন
সহকারি সম্পাদক : বিশ্বজিৎ পাল
যুগ্ন সম্পাদক : মো: কামরুল হাসান রিপন
নির্বাহী সম্পাদক: মো: সিরাজুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : সাগর আহমেদ শাহীন

সম্পাদক কর্তৃক বি এস প্রিন্টিং প্রেস ৫২ / ২ টয়েনবি সার্কুলার রোড, সূত্রাপুর ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৯৯ মতিঝিল , করিম চেম্বার ৭ম তলা , রুম নং-৭০২ , ঢাকা থেকে প্রকাশিত ।
মোবাইল: ০১৭২৬-৮৯৬২৮৯, ০১৬৮৪-২৯৪০৮০ Web: www.dailybishowmanchitra.com
Email: news@dailybishowmanchitra.com, rashedcprs@yahoo.com
    2015 @ All Right Reserved By dailybishowmanchitra.com

Developed By: Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD