|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   আইন - অপরাধ -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
আত্মসমর্পণ করা যাবে নিম্ন আদালতে

স্বাস্থ্যবিধি এবং শারীরিক ও সামাজিক দূরত্ব কঠোরভাবে অনুসরণ করে ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত ব্যক্তি চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণ করতে পারবে।

শনিবার সন্ধ্যায় প্রধান বিচারপতির নির্দেশক্রমে সুপ্রিমকোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল আলী আকবর এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেন।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, প্রধান বিচারপতি সুপ্রিমকোর্টের জ্যেষ্ঠ বিচারপতিদের সঙ্গে আলোচনাক্রমে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন যে, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ জারি করা স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব কঠোরভাবে অনুসরণ করে ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত ব্যক্তি/ব্যক্তিরা চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এবং চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণ করতে পারবেন।

এ বিষয়ে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট অথবা দায়িত্বপ্রাপ্ত সংশ্লিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেট এজলাস কক্ষে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনসহ শারীরিক ও সামাজিক দূরত্ব বজায় নিশ্চিতকরণে প্রয়োজনীয় কার্যপদ্ধতি নির্ধারণ করবেন।

এতে বলা হয়, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট অথবা দায়িত্বপ্রাপ্ত সংশ্লিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণ আবেদন দাখিল ও শুনানি কার্যক্রমের পদ্ধতি এবং সময়সূচি এমনভাবে নির্ধারণ ও সমন্বয় করতে হবে যাতে আদালত প্রাঙ্গণে এবং আদালত ভবনে কোনোরূপ জনসমাগম না ঘটে।
আদালত প্রাঙ্গণে ও এজলাস কক্ষে প্রত্যেককে কমপক্ষে ৬ ফুট শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে হবে। সব ধরনের জনসমাগম পরিহার করতে হবে।

প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়, উপরোক্ত আদালত জনসমাগম এড়াতে প্রতিদিন নির্দিষ্ট সংখ্যক আত্মসমর্পণ দরখাস্ত শুনানির জন্য গ্রহণ করবেন। এ সংক্রান্ত একটি তালিকা সম্বলিত বিজ্ঞপ্তি আদালত ও আইনজীবী সমিতির নোটিশ বোর্ডে প্রচারের ব্যবস্থা করবেন।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, একটি মামলার অভিযুক্ত ব্যক্তির পক্ষে সর্বোচ্চ দু’জন আইনজীবী শুনানিতে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। এজলাস কক্ষে একত্রে ছয়জনের অধিক লোকের সমাগম করা যাবে না।

তবে একই মামলার একাধিক আত্মসমর্পণকারী ব্যক্তি থাকলে এজলাস কক্ষের ডকে সর্বোচ্চ ৫ জন অভিযুক্ত ব্যক্তি অবস্থান করতে পারবেন।

এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনে ম্যাজিস্ট্রেট এরূপ মামলা একাধিক ভাগে/সেশনে শুনানি করতে পারবেন। সম্পূর্ণ শুনানি সম্পন্ন করে আইনানুগ আদেশ দেবেন। মামলা শুনানির সময় এজলাস কক্ষের বাইরে আদালতের বারান্দায় বা করিডোরে জনসমাগম সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ।

আত্মসমর্পণ দরখাস্ত শুনানির সময় অভিযুক্ত ব্যক্তি ও তার পক্ষে নিযুক্ত আইনজীবী ব্যতীত অন্য কোনো আইনজীবী এজলাস কক্ষে অবস্থান করবেন না।

একটি আত্মসমর্পণ দরখাস্ত শুনানি শেষে সংশ্লিষ্ট আইনজীবী এজলাস কক্ষ ত্যাগ করার পর ম্যাজিস্ট্রেট পরবর্তী আত্মসমর্পণের দরখাস্ত শুনানির জন্য গ্রহণ করবেন।

এজলাস কক্ষে প্রত্যেককে অবশ্যই মুখে মাস্ক পরে থাকতে হবে। আদালতে প্রবেশের সময় প্রত্যেক ব্যক্তির তাপমাত্রা পরীক্ষা করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা আবশ্যক।

এজলাস কক্ষে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনসহ শারীরিক দূরত্ব কঠোরভাবে বজায় নিশ্চিতকরণার্থে তাৎক্ষণিক উদ্ভূত যে কোনো পরিস্থিতি বিবেচনায় ম্যাজিস্ট্রেট প্রয়োজনবোধে আত্মমর্পণ দরখাস্ত শুনানি করা হতে বিরত থাকাসহ অন্যান্য আনুষঙ্গিক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবেন।
আদালতের কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার্থে সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনাক্রমে বর্ণিত বিষয়ে পূর্ণ সহায়তার জন্য আইনজীবীসহ সবাইকে অনুরোধ করা হয়েছে।
চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বর্ণিত মতে, স্বাস্থ্যবিধিসহ শরীরিক ও সামাজিক দূরত্ব অনুসরণ নিশ্চিতকরণের নিয়মাবলি প্রতিপালনসহ সার্বিক পরিস্থিতি সংক্রান্তে একটি প্রতিবেদন প্রতি সপ্তাহের বৃহস্পতিবার সুপ্রিমকোর্টে ইমেইলের মাধ্যমে পাঠাবেন।

এ নির্দেশনা অবিলম্বে কার্যকর হবে ও পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।

আত্মসমর্পণ করা যাবে নিম্ন আদালতে
                                  
স্বাস্থ্যবিধি এবং শারীরিক ও সামাজিক দূরত্ব কঠোরভাবে অনুসরণ করে ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত ব্যক্তি চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণ করতে পারবে।

শনিবার সন্ধ্যায় প্রধান বিচারপতির নির্দেশক্রমে সুপ্রিমকোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল আলী আকবর এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেন।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, প্রধান বিচারপতি সুপ্রিমকোর্টের জ্যেষ্ঠ বিচারপতিদের সঙ্গে আলোচনাক্রমে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন যে, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ জারি করা স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব কঠোরভাবে অনুসরণ করে ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত ব্যক্তি/ব্যক্তিরা চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এবং চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণ করতে পারবেন।

এ বিষয়ে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট অথবা দায়িত্বপ্রাপ্ত সংশ্লিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেট এজলাস কক্ষে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনসহ শারীরিক ও সামাজিক দূরত্ব বজায় নিশ্চিতকরণে প্রয়োজনীয় কার্যপদ্ধতি নির্ধারণ করবেন।

এতে বলা হয়, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট অথবা দায়িত্বপ্রাপ্ত সংশ্লিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণ আবেদন দাখিল ও শুনানি কার্যক্রমের পদ্ধতি এবং সময়সূচি এমনভাবে নির্ধারণ ও সমন্বয় করতে হবে যাতে আদালত প্রাঙ্গণে এবং আদালত ভবনে কোনোরূপ জনসমাগম না ঘটে।
আদালত প্রাঙ্গণে ও এজলাস কক্ষে প্রত্যেককে কমপক্ষে ৬ ফুট শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে হবে। সব ধরনের জনসমাগম পরিহার করতে হবে।

প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়, উপরোক্ত আদালত জনসমাগম এড়াতে প্রতিদিন নির্দিষ্ট সংখ্যক আত্মসমর্পণ দরখাস্ত শুনানির জন্য গ্রহণ করবেন। এ সংক্রান্ত একটি তালিকা সম্বলিত বিজ্ঞপ্তি আদালত ও আইনজীবী সমিতির নোটিশ বোর্ডে প্রচারের ব্যবস্থা করবেন।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, একটি মামলার অভিযুক্ত ব্যক্তির পক্ষে সর্বোচ্চ দু’জন আইনজীবী শুনানিতে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। এজলাস কক্ষে একত্রে ছয়জনের অধিক লোকের সমাগম করা যাবে না।

তবে একই মামলার একাধিক আত্মসমর্পণকারী ব্যক্তি থাকলে এজলাস কক্ষের ডকে সর্বোচ্চ ৫ জন অভিযুক্ত ব্যক্তি অবস্থান করতে পারবেন।

এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনে ম্যাজিস্ট্রেট এরূপ মামলা একাধিক ভাগে/সেশনে শুনানি করতে পারবেন। সম্পূর্ণ শুনানি সম্পন্ন করে আইনানুগ আদেশ দেবেন। মামলা শুনানির সময় এজলাস কক্ষের বাইরে আদালতের বারান্দায় বা করিডোরে জনসমাগম সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ।

আত্মসমর্পণ দরখাস্ত শুনানির সময় অভিযুক্ত ব্যক্তি ও তার পক্ষে নিযুক্ত আইনজীবী ব্যতীত অন্য কোনো আইনজীবী এজলাস কক্ষে অবস্থান করবেন না।

একটি আত্মসমর্পণ দরখাস্ত শুনানি শেষে সংশ্লিষ্ট আইনজীবী এজলাস কক্ষ ত্যাগ করার পর ম্যাজিস্ট্রেট পরবর্তী আত্মসমর্পণের দরখাস্ত শুনানির জন্য গ্রহণ করবেন।

এজলাস কক্ষে প্রত্যেককে অবশ্যই মুখে মাস্ক পরে থাকতে হবে। আদালতে প্রবেশের সময় প্রত্যেক ব্যক্তির তাপমাত্রা পরীক্ষা করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা আবশ্যক।

এজলাস কক্ষে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনসহ শারীরিক দূরত্ব কঠোরভাবে বজায় নিশ্চিতকরণার্থে তাৎক্ষণিক উদ্ভূত যে কোনো পরিস্থিতি বিবেচনায় ম্যাজিস্ট্রেট প্রয়োজনবোধে আত্মমর্পণ দরখাস্ত শুনানি করা হতে বিরত থাকাসহ অন্যান্য আনুষঙ্গিক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবেন।
আদালতের কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার্থে সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনাক্রমে বর্ণিত বিষয়ে পূর্ণ সহায়তার জন্য আইনজীবীসহ সবাইকে অনুরোধ করা হয়েছে।
চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বর্ণিত মতে, স্বাস্থ্যবিধিসহ শরীরিক ও সামাজিক দূরত্ব অনুসরণ নিশ্চিতকরণের নিয়মাবলি প্রতিপালনসহ সার্বিক পরিস্থিতি সংক্রান্তে একটি প্রতিবেদন প্রতি সপ্তাহের বৃহস্পতিবার সুপ্রিমকোর্টে ইমেইলের মাধ্যমে পাঠাবেন।

এ নির্দেশনা অবিলম্বে কার্যকর হবে ও পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।

বিশ্ব মানচিত্র পত্রিকার সাংবাদিক ফরজুন আক্তার মনি সন্ত্রাসী হামলার শিকার
                                  


স্টাফ রিপোর্টার: গতকাল দুপুর ১.২০ ঘটিকায় হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলাধীন আউশ কান্দিতে পেশাগত কাজে তথ্য সংগ্রহের জন্য অরবিট হাসপাতালে গেলে দৈনিক বিশ্ব মানচিত্র পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার (হবিগঞ্জ) ফরজুন আক্তার মনিকে স্থানীয় সুলতান গং সন্ত্রাসীরা আক্রমন করে । আক্রমনের ভিডিও চিত্র বিশ্ব মানচিত্র পত্রিকা অফিসে সংরক্ষিত রয়েছে। এবিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাংবাদিক সহ বিভিন্ন মহল থেকে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। বিশ্ব মানচিত্র সম্পাদক নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে হামলার বিষয়টি জানালে সে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন। উক্ত হামলার বিষয়ে নবীগঞ্জ থানায়  মামলা রুজুর প্রক্রিয়া চলছে বলে জানা গেছে।

বেনাপোল কাস্টমসের জনসমাগমের সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিকের নামে জিডি
                                  

 

মোঃ নজরুল ইসলাম, বিশেষ প্রতিনিধি: প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা উপেক্ষা করে বেনাপোল কাস্টমস হাউসে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করায় তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন প্রচার মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ায় সাংবাদিকের নামে সাধারণ ডায়েরী করেছেন কাস্টমস কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার সকালে বেনাপোল কাস্টমস হাউসের কমিশনার বেলাল হোসাইন চৌধূরীর নির্দেশনায় কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণকালে লোকসমাগমের চিত্র ও বেনাপোলবাসীর আতঙ্কের কথা প্রচার মাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ায় তিনি কাস্টমসের জনৈক কর্মকর্তাকে বাদী করে স্থানীয় দৈনিক স্পন্দন পত্রিকার বেনাপোল প্রতিনিধি ও বন্দর প্রেসক্লাবের সভাপতি শেখ কাজিম উদ্দিনসহ কয়েকজন সাংবাদিকের নামে এই সাধারণ ডায়েরী করেন। এসাথে বেলাল হোসাইন নামে একটি ফেসবুক আইডিতে বিভিন্ন উস্কানিমূলক কথাবার্তা ও অশ্লীল ভাষায় কমেন্টস লেখেন। যা দেখে হতবাক হয়েছেন স্থানীয় সংবাদকর্মীরা। এ বিষয়ে শনিবার বিকেল ৫টার সময় শেখ কাজিম উদ্দিন স্বাক্ষরিত এক স্মারকলিপি জেলা প্রশাসক, যশোর বরাবর শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পূলক কুমার মন্ডলের মাধ্যমে জমা দেন স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দ। এ বিষয়ে দৈনিক স্পন্দন পত্রিকার বেনাপোল প্রতিনিধি ও বন্দর প্রেসক্লাবের সভাপতি শেখ কাজিম উদ্দিন বলেন, গত ১ ও ২ এপ্রিল বেনাপোল কাস্টমস হাউসের সামনে বিপুল সংখ্যক লোকসমাগম ঘটিয়ে কাস্টমস কমিশনার বেলাল হোসাইন চৌধূরীর উদ্যোগে কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন। এ নিয়ে এলাকার সচেতন মহলের মধ্যে করোনা আতঙ্ক সৃষ্টি হলে তা সংবাদকর্মীদের অবহিত করেন। যা স্থানীয় সংবাদকর্মীরা ঘটনা স্থলে গিয়ে লোকসমাগমের সত্যতা পায় এবং তাৎক্ষণিক লোক সমাগমের স্থির চিত্র ও ভিডিও চিত্র ধারণ পূর্বক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মন্তব্যসহ বিভিন্ন অনলাইন পোর্টালে সংবাদ পরিবেশন করেন। এতে বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার ক্ষিপ্ত হয়ে তিনি সংবাদ কর্মীদের নামে তার বেলাল চৌধূরী নামে ফেসবুক পেইজে গণমাধ্যমকর্মীদের ইঙ্গিত করে বিভিন্ন মন্তব্য ছোড়াসহ চিহ্নিত করে মামলা করার হুমকি দেন। সরকারি কর্মকর্তার এহেন আচরনে সংবাদকর্মীদের পেশাগত কাজ প্রশ্নবিদ্ধ করা ও সংবাদকর্মীদের নামে সাধারণ ডায়েরীর প্রতিবাদে শনিবার বিকেল ৫টার সময় শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে স্থানীয় সংবাদকর্মীরা জেলা প্রশাসক, যশোর বরাবর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে স্মারকলিপি প্রদাণ করা হয়েছে। এমতাবস্থায় বেনাপোলের সংবাদকর্মীরা বেনাপোল কাস্টমস হাউসের কমিশনার বেলাল চৌধূরীর অপ্রসাঙ্গিক কর্মকান্ডে স্বাধীনভাবে সংবাদ পরিবেশনে বাধাগ্রস্থ্য হচ্ছে। সেসাথে পেশাগত দ্বায়িত্ব পালনেও অনিহা প্রকাশ করছে। শেখ কাজিম উদ্দিন এর ফেসবুক আইডি থেকে যে চাঞ্চল্যকর লেখাটি এবং যে লেখাকে কেন্দ্র করে সাধারণ ডায়েরী করা হয় তা হুবহু উল্লেখিত করা হলো- বিশ্বজুড়ে মহামারী করোনা ভাইরাস আতঙ্কে মানুষ যখন দিশেহারা হয়ে বাঁচার আকূতি করছেন ঠিক সেই সময়ে মানবতার মা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশবাসীকে ঘরে থাকার নির্দেশ দেন। আর সেই মুহুর্তে বেনাপোল কাস্টমস কর্তৃপক্ষ মানুষের অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে কেবল নিজেদের বাহবা কুড়োতে ঘরবন্দী মানুষদের খাদ্যের সহযোগিতার নামে ডেকে এনে জনজীবন হুমকির দিকে ঠেলে দিচ্ছেন। বৃহস্পতিবার সকালে বেনাপোল কাস্টমস হাউসের সামনে অসহায় মানুষদের এমন ঠেলাঠেলি ভিড় দেখে আতঙ্কে শিহরে উঠেন জনতা।

আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের ৪ সদস্য গ্রেপ্তার: র‌্যাব
                                  

রাজধানীর খিলক্ষেত এলাকায় অভিযান চালিয়ে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের চার সদস্যকে গ্রেপ্তারের কথা জানিয়েছে র‌্যাব।

রোববার সকালে র‌্যাবের গণমাধ্যম শাখা থেকে পাঠানো এক বার্তায় এ তথ্য জানানো হয়।

র‌্যাব জানায়, খিলক্ষেত থানাধীন নিকুঞ্জ এলাকা থেকে চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সক্রিয় সদস্য।

তাদের কাছ থেকে বেশ কিছু উগ্রবাদী বই ও লিফলেট উদ্ধার করা হয়েছে বলেও জানায় র‌্যাব

গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের নাম-পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। সংবাদ সম্মেলন করে এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জানাবে র‌্যাব

সাবেক ওসি মোয়াজ্জেমের ৮ বছর জেল, ১০ লাখ টাকা জরিমানা
                                  

ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহানের আপত্তিকর ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার মামলায় ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনকে আট বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাঁকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেন এই রায় দেন।

রায় ঘোষণার আগে সাবেক ওসি মোয়াজ্জেমকে কারাগার থেকে ঢাকার আদালতের হাজতখানায় হাজির করা হয়। বেলা ২টার পর তাঁকে আদালতের এজলাসে তোলা হয়।

রায়ে আদালত বলেন, সাবেক ওসি মোয়াজ্জেমকে এই টাকা ভুক্তভোগী নুসরাত জাহানের পরিবারকে দিতে হবে।

রায়ের প্রতিক্রিয়ায় মামলার বাদী সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সৈয়দ সাইদুল হক সাংবাদিকদের বলেন, এই রায়ের মাধ্যমে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ভুক্তভোগী নুসরাত জাহানের ভিডিও ছেড়ে দিয়ে সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম যে অপরাধ করেছিলেন, সেটি আজ আদালতের রায়ের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

তবে মোয়াজ্জেমের আইনজীবী ফারুক আহমেদ সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেছেন, তাঁর মক্কেল ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত হয়েছে। এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে যাবেন তাঁরা। ২০ নভেম্বর এই মামলার যুক্তিতর্ক শেষ হলে আদালত রায়ের জন্য আজ তারিখ ধার্য করেন।

গত ১৭ জুলাই সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আদালত। সেদিন ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন আদালতের কাছে দাবি করেন, তিনি নির্দোষ।

ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাতের ভিডিও ধারণ করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগে গত ১৫ এপ্রিল মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা হয়। সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামলাটি তদন্তের নির্দেশ দেন। তদন্ত শেষে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) গত ২৭ মে মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয়। আদালত তা আমলে নিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা দেন। এর ২০ দিনের মাথায় গত ১৬ জুন মোয়াজ্জেম হাইকোর্ট এলাকা থেকে গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে আছেন।

নুসরাত জাহানকে গত ৬ এপ্রিল পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করেন তাঁর মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা। ১০ এপ্রিল সে ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। এর ১০ দিন আগে নুসরাত মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ জানাতে সোনাগাজী থানায় যান। থানার তৎকালীন ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন সে সময় নুসরাতকে আপত্তিকর প্রশ্ন করে বিব্রত করেন এবং তা ভিডিও করে ছড়িয়ে দেন বলে অভিযোগ আনা হয় মামলায়।

ফেনীর মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাতকে পুড়িয়ে হত্যার মামলায় গত ২৪ অক্টোবর ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মামুনুর রশিদ বরখাস্ত হওয়া অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলাসহ ১৬ আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দেন।

ফুটপাতে হকাররা চাঁদাবাজদের প্রশ্রয়ে বহাল তবিয়তে
                                  

ঢাকা শহরের সৌন্দর্য বৃদ্ধি ও স্বল্প আয়ের হকারদের পুনর্বাসনের লক্ষ্যে নগরীতে হলিডে মার্কেট চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল; কিন্তু সিটি করপোরেশনের উদাসীনতা ও চাঁদাবাজদের দাপটে এ উদ্যোগ পুরোপুরি বাস্তবায়িত হয়নি। এ কারণে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় প্রায়ই উচ্ছেদ অভিযান চালানো হলেও বেশির ভাগ ফুটপাত দখলমুক্ত করা যাচ্ছে না। অভিযানের পরপরই সেখানে ফের বসে পড়ছেন হকাররা।

২০১৬ সালের ২৮ এপ্রিল একনেক সভায় হকারদের পুনর্বাসনের বিষয়ে সাপ্তাহিক ছুটির দিনে উপযুক্ত স্থানে হলিডে মার্কেট চালু করার কথা বলা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন রাজধানীর পাঁচটি স্থানে ছুটির দিন হাকরদের পণ্যের পসরা বসানোর উদ্যোগ নেয়। তবে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন শুধু নারীদের জন্য মহাখালী টার্মিনালের পাশে হলিডে মার্কেট বসানোর উদ্যোগ নেয়। তবে এটি কিছুদিন পরে বন্ধ হয়ে গেছে।

এরপর ২০১৬ সালের ৩০ ডিসেম্বর প্রকাশিত ডিএসসিসির গণবিজ্ঞপ্তিতে মতিঝিল আইডিয়াল স্কুলের সামনে, বায়তুল মোকাররম লিংক রোড, দিলকুশা বাণিজ্যিক এলাকা, নবাবপুর রোড ও সেগুনবাগিচা—এই পাঁচটি এলাকায় হলিডে বাজার বসানোর সিদ্ধান্ত জানানো হয়। প্রতি শুক্র-শনিবার ও সরকারি ছুটির দিন সকাল আটটা থেকে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত এসব মার্কেট চালু থাকবে বলেও জানানো হয়। শর্ত ছিল, নির্ধারিত স্থান ও দিনে ব্যবসা করার পর ব্যবসায়ীদের নিজ দায়িত্বে মালামাল সরিয়ে নিতে হবে। তাঁদের নির্ধারিত দাগের মধ্যে বসতে হবে। কোনো স্থায়ী বা অস্থায়ী কাঠামো নির্মাণ করা যাবে না।

হকারদের একাংশের ভাষ্য, করপোরেশনের এ সিদ্ধান্তের পর মতিঝিল আইডিয়াল স্কুলের সামনে এবং বায়তুল মোকাররম লিংক রোডে হলিডে মার্কেট চালু হয়। এ দুটি এখনো চলছে। তবে বাকি তিনটি হলিডে মার্কেট চালু হয়নি। বাংলাদেশ হকার্স লীগ ও হকার্স ফেডারেশনের সভাপতি এম এ কাশেম প্রথম আলোকে বলেন, ‘ফুটপাতে লাইনম্যান নামধারী চাঁদাবাজ, পুলিশ ও স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তিদের কারণে বাকি হলিডে মার্কেটগুলো চালু করা যাচ্ছে না। কারণ, হলিডে মার্কেট চালু হলে ফুটপাত থেকে লাইনম্যান ও পুলিশের চাঁদাবাজি বন্ধ হয়ে যাবে।’

জানা গেছে, গুলিস্তান, মতিঝিলসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় ফুটপাত দখল করে ব্যবসা করা হকাররা হলিডে মার্কেটে যেতে চাচ্ছেন না। তাঁরা বলছেন, গুলিস্তানে বেচাবিক্রি বেশি। সেগুনবাগিচা বা অন্যত্র গেলে তাঁদের বিক্রি কমে যাবে। এ ছাড়া লাইনম্যানরাও হকারদের না যেতে মদদ জোগাচ্ছেন। কারণ, হলিডে মার্কেটে হকাররা চলে গেলে তাঁদের আয় বন্ধ হয়ে যাবে। এ জন্যই হকাররা গুলিস্তান এলাকা ছাড়াছেন না। ফলে গুলিস্তানে তীব্র যানজট নিরসনে কোনো উদ্যোগই কাজে আসছে না।

এ অবস্থায় লাইনম্যানদের চিহ্নিত করে শাস্তির আওতায় আনার পরামর্শ দিচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। বঙ্গবাজারের ব্যবসায়ী সাহাবুদ্দীন মনে করেন, হকারদের হলিডে মার্কেটে যাওয়ার ব্যাপারে বাধ্য করতে হবে। অভিযান চালিয়ে ফুটপাতে হকার বসানোর প্রবণতা সাময়িক সময়ের জন্য বন্ধ হলেও এর স্থায়ী সমাধান হবে না।

বাংলাদেশ হকার্স লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজহারুল ইসলাম বলেন, পথচারীরা ফুটপাত হয়ে স্বচ্ছন্দে চলাচল করুক এটা তাঁরা চান। তবে লাইনম্যানদের চিহ্নিত করে হকারদের হলিডে মার্কেটে বসানোর ক্ষেত্রে সিটি করপোরেশনকে উদ্যোগ নিতে হবে। 

জানতে চাইলে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা রাসেল সাবরীন প্রথম আলোকে বলেন, প্রায়ই ভ্রাম্যমাণ আদালত চালিয়ে ফুটপাত দখলকারীদের শাস্তি দেওয়া হচ্ছে। ফুটপাতে বসার জন্য হকারদের যারা ইন্ধন দিচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যেকোনো মূল্যে হকারদের ফুটপাত ছাড়াতে হবে জানিয়ে এই কর্মকর্তা বলেন, হলিডে মার্কেটে হকারদের কোনো সমস্যা হলে জানাতে হবে। তাঁরা সমস্যার সমাধান করবেন। হকারদের কল্যাণে সিটি করপোরেশনের যেসব অঙ্গীকার আছে, তা পূরণ করা হবে। হকারদের ফুটপাত ছাড়তে হবে।

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে পদ্মায় ইলিশ শিকারে ১৭ জেলের কারাদণ্ড
                                  

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে পদ্মায় ইলিশ শিকারে ১৭ জেলেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে প্রত্যেককে এক বছর করে কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলায় শিলাইদহ ও জগন্নাথপুর ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।

কুমারখালী উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাজিবুল ইসলাম খান জানান, কুমারখালী উপজেলার শিলাইদহ ও জগন্নাথপুর ইউনিয়নের পার্শ্ববর্তী পদ্মা নদীতে মা ইলিশ রক্ষায় সকালে অভিযান চালানো হয়।

এ সময় ১৭ জেলেকে আটক করা হয়। আটককৃত প্রত্যেককে সরকারি আদেশ অমান্য করে ইলিশ মাছ ধরার অপরাধে মৎস্য রক্ষা ও সংরক্ষণ আইন ১৯৫০ অনুযায়ী এক বছর কারাদণ্ড প্রদান করা হয় এবং জব্দকৃত কারেন্ট জাল আগুনে পুড়িয়ে ফেলা হয়।

শনি আখড়ায় রাস্তা ও খাল দখল করে দোকান বসিয়ে চাঁদাবাজি
                                  


রাজধানীর  শনি আখড়ার ১নং জয়িা স্মরণী-২৪ ফুট রোডে এভাবইে  খাল ও রাস্তা  দখল করে দোকান বসয়িে
চলছে চাঁদাবাজ,িযানজট ও র্দূগন্ধে এলাকাবাসি অতষ্টি : প্রশাসন নরিব ।

শিমুলিয়া ফেরীঘাটে বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষের অভিযান
                                  


গত ১০ অক্টোবর বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ মাওয়া শিমুলিয়া ফেরিঘাটের অবৈধ স্থাপনা এভাবেই গুঁড়িয়ে দিয়েছে।

ঢাকার আদালত পাড়ায় অবৈধ দোকানীদের জন্য মানুষ জট
                                  

ঢাকার সিএমএম কোর্টের গারদখানার পশ্চিম দিকের রাস্তাটি অবৈধ দোকানীদের দখলে চলে যাওয়ায় দিনের বেশীর ভাগ সময় এরকম মানুষ জট লেগেই থাকে। এটি গতকাল সকাল ৯.৩০ ঘটিকার দৃশ্য।

কেরানীগঞ্জে কিশোর খুনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ
                                  

করানীগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ রাজধানীর অদূরে কেরানীগঞ্জে দুস্কৃতিকারীদের ছুরিকাঘাতে অন্তর মন্ডল (১৬) নামের এক কিশোর নিহত হয়েছে। গত শুক্রবার সন্ধ্যা ৭ টার দিকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন শুভাঢ্যা কাচারীপাড়া এলাকায় এ হত্যাকান্ড ঘটে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বাক-বিতন্ডার জের ধরে অন্য এলাকার ২০/২৫ জন কিশোর ঐ এলাকায় মহড়া দেওয়ার সময় অভি সরকার (১৯) নামের এক কিশোরকে ছুরিকাঘাত করে। পথিমধ্যে নিরঞ্জন বাড়ৈর মুদি দোকানের সামনে অন্তর মন্ডলকে পেয়ে বেধড়ক মারধর ও ছুরিকাঘাত করে তারা পালিয়ে যায়। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে মামুন (২০) নামের এক কিশোরকে আটক করে এলাকাবাসী পুলিশে সোপর্দ করে। গুরুতর আহত অবস্থায় অন্তরকে স্থানীয় শাহানা ক্লিনিকে নিলে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়। সেখানের কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করে। নিহত অন্তরের মামা ইশ্বর জানায়, অন্তর একজন মটর মেকানিক ও তার বাবার নাম অখিল চন্দ্র মন্ডল। এছাড়া আহত অভি সরকার একজন ইন্টারনেট ব্যবসায়ী। এদিকে, হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে ও ন্যায় বিচারের দাবীতে গত ১২ অক্টোবর এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ এবং মানববন্ধন করে। এ ব্যাপারে দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহ জামান জানান, ঘটনার খবর পেয়েই আমরা ঘটনাস্থল ও হাসপাতালে উপস্থিত হই। হত্যাকান্ডের মূল রহস্য এখনও উৎঘাটন করা যায়নি, এ ব্যাপারে থানায় হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে।


আবরারের ‘খুনিদের’ পক্ষে দাঁড়ানোয় বিএনপি থেকে আইনজীবী বহিষ্কার
                                  

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার আসামিদের পক্ষে আদালতে দাঁড়ানোর ঘটনায় জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সদস্য আইনজীবী মোর্শেদা খাতুনকে বহিষ্কার করেছে বিএনপি।

আজ বুধবার বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছেন। ‘সংগঠনবিরোধী তৎপরতার’ দায়ে আইনজীবী মোর্শেদা খাতুনকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের সংগঠন।

গত রোববার রাতে বুয়েটের শেরেবাংলা হলে আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করেন ছাত্রলীগের একদল নেতা-কর্মী। এই ঘটনায় বুয়েট ছাত্রলীগের ১৩ নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাঁদের মধ্যে ১০ জনকে গতকাল আদালতের মাধ্যমে রিমান্ডে নেওয়া হয়। আবরার হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি ১৯ জন।

আইনজীবী মোর্শেদা খাতুন এই হত্যা মামলার আসামিদের পক্ষে গতকাল মঙ্গলবার ঢাকার আদালতে দাঁড়িয়েছেন বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনা হয়।

বিএনপির সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সংগঠনবিরোধী তৎপরতার জন্য বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মোর্শেদা খাতুনকে সংগঠনের সকল পর্যায়ের পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

১৮ হাজার কোটি টাকার ট্যাক্স ফাঁকি
                                  

সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দিতে নজিরবিহীন মামলার রেকর্ড গড়েছে মেঘনা গ্রুপ। আমদানি শুল্ক, মূল্য সংযোজন কর-মূসক ও আয়কর ফাঁকি দিতে ২০০১ সালের পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় দেড় হাজার মামলা করেছে মেঘনা গ্রুপের বিভিন্ন কোম্পানি। এসব মামলায় সরকারের প্রায় ১৮ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আটকে আছে। রাজস্ব-সংক্রান্ত ট্রাইব্যুনাল ও উচ্চ আদালত সূত্রে পাওয়া তথ্য বিশ্লেষণ করে এমন চিত্রই পাওয়া গেছে।

পরিসংখ্যান বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, রাজস্ব ফাঁকি দিতে এসব মামলার শুনানিতেও আগ্রহ নেই মেঘনা গ্রুপের। শুনানির জন্য ধার্য তারিখগুলোয় একের পর এক সময় আবেদন দেওয়া থেকে শুরু করে নানা ধরনের ছলচাতুরী করছে তারা। সংশ্লিষ্টরা জানান, বিচার বিভাগের চলমান দীর্ঘসূত্রতা কাজে লাগিয়ে হাজার হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আটকে রেখেছে কিছু কোম্পানি; যার অন্যতম মেঘনা গ্রুপ। তারা মামলাকে রাজস্ব ফাঁকির হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে। ট্যাক্স ফাঁকিতে মেঘনা গ্রুপের একের পর এক মামলা দায়ের নিয়ে আদালতপাড়ায় বিরূপ আলোচনাও রয়েছে। আইনজ্ঞরা বলেন, রাজস্ব-সংক্রান্ত মামলা বেশিদিন ঝুলে থাকা মানে সরকারের কোষাগারের ওপর ধারাবাহিকভাবে চাপ সৃষ্টি হওয়া; যার ফল জনগণকেই ভুগতে হয়। তাই এসব মামলা বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে নিষ্পত্তি করতে হবে। রাজস্ব ফাঁকি দিতে মামলা দায়েরকারী মেঘনা গ্রুপের প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে-  তানভীর ফুড লিমিটেড, তানভীর স্টিল মিলস লিমিটেড, ইউনিক সিমেন্ট ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, ইউনাইটেড সুগার মিলস লিমিডেট, ইউনাইটেড এডিবল অয়েল মিলস লিমিটেড, তানভীর অয়েল মিলস লিমিটেড, জনতা ফ্লাওয়ার অ্যান্ড ডাল মিলস লিমিটেড, ইউনাইটেড ফাইবার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, তানভীর পলিমার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, তাসনিম কনডেস্ক মিল্ক লিমিটেড, তানভীর পেপার মিলস লিমিটেড, তাসনিম কেমিক্যাল কমপ্লেক্স লিমিটেড, ইউনিক পাওয়ার প্লান্ট, সোনারগাঁও সল্ট ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। এসব প্রতিষ্ঠান ধারাবাহিকভাবে মামলা দায়ের করে চলেছে।

জানা গেছে, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড-এনবিআর কোনো প্রতিষ্ঠানের কাছে ভ্যাট দাবি করলে তার বিরোধিতায় আইনি প্রক্রিয়ায় যাওয়ার সুযোগ রয়েছে। এ ক্ষেত্রে এনবিআরের অ্যাপিলেট ট্রাইব্যুনালে আবেদন বা উচ্চ আদালতে রিট দায়ের করা যায়। উচ্চ আদালত রিট দায়ের করার পর আবেদন খারিজ করে এনবিআরে পাঠাতে পারে। সে ক্ষেত্রে এনবিআরের অ্যাপিলেট ট্রাইব্যুনালে আবেদন করতে হয়। এজন্য দাবিকৃত অর্থের ১০ শতাংশ পরিশোধ করতে হয়। অ্যাপিলেট ট্রাইব্যুনাল প্রয়োজনীয় শুনানি শেষে রায় দেয়। এরপর বেশির ভাগ প্রতিষ্ঠান ফের উচ্চ আদালতে আপিল করে। এভাবে গড়িয়ে যায় বছরের পর বছর।

 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন আইন কর্মকর্তা বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, বড় বড় কোম্পানিগুলো আসলে ভ্যাট, ট্যাক্স দিতেই চায় না। আদালতে একবার মামলা দায়ের করার পর সেই মামলা দীর্ঘদিন ঝুলিয়ে রাখতে নতুন নতুন কৌশল নিতে থাকে। ধার্য তারিখগুলোয় শুনানি না করতেও তারা নানা ধরনের অজুহাত হাজির করে। এতে একদিকে যেমন সরকারে প্রাপ্য রাজস্ব আদায় করা সম্ভব হয় না, অন্যদিকে আদালতে মামলাজটও বাড়তে থাকে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ‘দেশে যতসংখ্যক মামলার জট রয়েছে, তাতে সুযোগসন্ধানীরা তো সুযোগ নেবেই। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে একশ্রেণির ব্যবসায়ী মামলাকে রাজস্ব ফাঁকির হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছেন। মেঘনা গ্রুপও তেমনই একটি প্রতিষ্ঠান।

আসামি ছেড়ে ইয়াবা ভাগাভাগি পাঁচ পুলিশ রিমান্ডে
                                  

 

 

আসামি ছেড়ে দিয়ে আটক ইয়াবা ভাগবাটোয়ারা ও বিক্রির প্রস্তুতির সময় গ্রেফতার পাঁচ পুলিশ সদস্যকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে নেওয়ার অনুমতি দিয়েছে আদালত। গতকাল ঢাকার উত্তরা পূর্ব থানায় মাদক আইনের মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশের আবেদন শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম কনক বড়ুয়া তিনজনকে তিনদিন করে ও দুইজনকে দুইদিন করে রিমান্ডে নেওয়ার আদেশ দেন। এদের মধ্যে গুলশান থানার এএসআই মাসুদ আহমেদ মিয়াজী (৪৪), এপিবিএনের কনস্টেবল প্রশান্ত ম ল (২৩) ও নায়েক মো. জাহাঙ্গীর আলমকে (২৭) তিন দিন করে এবং এপিবিএনের কনস্টেবল মো. রনি মোল্লা (২১) ও কনস্টেবল মো. শরিফুল ইসলামকে (২৩) দুই দিন করে রিমান্ড দেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, গুলশান থানার গুদারাঘাট এলাকায় গত ১১ সেপ্টেম্বর চেক পোস্টে দায়িত্ব পালনকালে এক মোটরসাইকেল আরোহীকে তল্লাশি করে ৫৫২ পিস ইয়াবা পায়। এ সময় অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যরা ইয়াবাগুলো রেখে তাকে ছেড়ে দেয়। পরে উত্তরার এপিবিএন-১ সদর দফতরের ব্যারাক ভবনের চতুর্থ তলার বাথরুমের সামনে ইয়াবা ভাগবাটোয়ারার সময় বিষয়টি ফাঁস হয়ে যায়। এ ঘটনায় উত্তরা পূর্ব থানায় মামলা হয়।

টেকনাফে ২৪,৩০০ পিস ইয়াবাসহ আটক ২
                                  

কক্সবাজারের টেকনাফে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সদস্যরা অভিযান চালিয়ে ২৪ হাজার ৩শ’ পিস ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছেন।

আটককৃতরা হচ্ছেন গাজীপুরের কলোমাচর এলাকার মকুল আহমেদের ছেলে মো. জসিম উদ্দিন (৩৪) ও ফেনী জেলার পশ্চিম  চিলিনিয়া এলাকার আব্দুল কাদেরের ছেলে মুশাররফ হোসেন (৩৩)।

টেকনাফ সদর ইউনিয়নের বিজি রোড এলাকার নুর মোহাম্মদ মার্কেট থেকে ইয়াবাগুলো উদ্ধার করা হয়। 
      
র‌্যাব-১৫, টেকনাফ ক্যাম্পের ইনচার্জ লে. মির্জা শাহেদ মাহতাব (পিপিএম), এক্স বিএন বলেন, বুধবার ভোররাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে টেকনাফ সদর  ইউনিয়নের নুর মোহাম্মদ মার্কেটে অভিযান চালিয়ে অভিনব পদ্ধতিতে লুকানো অবস্থায় স্টিলের পাইপের ভেতর থেকে ২৪হাজার ৩শ’ পিস ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে হাতেনাতে  আটক করা হয়।

রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত উদ্ধারকৃত ইয়াবাসহ দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট মাদক আইনে মামলা রুজু করে টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন ছিল বলে জানান তিনি।

অন্তর্বাসে স্বর্ণের বার লুকিয়ে এনে শাহজালালে ধরা পড়লেন দুই কেবিন ক্রু
                                  

রাজধানীর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সৌদি এয়ারলাইন্সের ২ নারী কেবিন ক্রু কে ৩৬ পিস স্বর্ণের বারসহ আটক করা হয়েছে। আর্মড পুলিশের সহায়তায় বিমানবন্দর কাস্টমস কর্তৃপক্ষ সায়মা আক্তার ও ফারজানা আফরোজ নামের এই দুই কেবিন ক্রু কে আটক করে। 

এ সময় সায়মার কাছ থেকে ২৬ পিস এবং ফারজানার কাছ থেকে ১০ পিস স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়। 

সৌদি এয়ারলাইন্সের এসভি-৮০২ ফ্লাইটটি শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে রবিবার দিবাগত মধ্যরাতে অবতরণের পর ঐ ফ্লাইটের দুই কেবিন ক্রু কে তল্লাশিকালে তাদের অন্তর্বাসে লুকিয়ে রাখা ৩৬টি স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়। দুইজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ।


   Page 1 of 33
     আইন - অপরাধ
আত্মসমর্পণ করা যাবে নিম্ন আদালতে
.............................................................................................
বিশ্ব মানচিত্র পত্রিকার সাংবাদিক ফরজুন আক্তার মনি সন্ত্রাসী হামলার শিকার
.............................................................................................
বেনাপোল কাস্টমসের জনসমাগমের সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিকের নামে জিডি
.............................................................................................
আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের ৪ সদস্য গ্রেপ্তার: র‌্যাব
.............................................................................................
সাবেক ওসি মোয়াজ্জেমের ৮ বছর জেল, ১০ লাখ টাকা জরিমানা
.............................................................................................
ফুটপাতে হকাররা চাঁদাবাজদের প্রশ্রয়ে বহাল তবিয়তে
.............................................................................................
নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে পদ্মায় ইলিশ শিকারে ১৭ জেলের কারাদণ্ড
.............................................................................................
শনি আখড়ায় রাস্তা ও খাল দখল করে দোকান বসিয়ে চাঁদাবাজি
.............................................................................................
শিমুলিয়া ফেরীঘাটে বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষের অভিযান
.............................................................................................
ঢাকার আদালত পাড়ায় অবৈধ দোকানীদের জন্য মানুষ জট
.............................................................................................
কেরানীগঞ্জে কিশোর খুনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ
.............................................................................................
আবরারের ‘খুনিদের’ পক্ষে দাঁড়ানোয় বিএনপি থেকে আইনজীবী বহিষ্কার
.............................................................................................
১৮ হাজার কোটি টাকার ট্যাক্স ফাঁকি
.............................................................................................
আসামি ছেড়ে ইয়াবা ভাগাভাগি পাঁচ পুলিশ রিমান্ডে
.............................................................................................
টেকনাফে ২৪,৩০০ পিস ইয়াবাসহ আটক ২
.............................................................................................
অন্তর্বাসে স্বর্ণের বার লুকিয়ে এনে শাহজালালে ধরা পড়লেন দুই কেবিন ক্রু
.............................................................................................
প্রিমিয়ার ব্যাংকের নারী কর্মকর্তার কাছে ১ কেজি স্বর্ণ
.............................................................................................
ছাত্রলীগ নেতাকে পায়ের রগ কেটে হত্যা
.............................................................................................
ভুয়া প্রকৌশলীর বিয়ের ফাঁদ
.............................................................................................
ফের আলোচনায় সেই মিতু, পরকীয়া প্রেমিকসহ আসামিদের দেশে আনার উদ্যোগ
.............................................................................................
অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার তৈরি-পরিবেশন, জরিমানা
.............................................................................................
আশুলিয়ায় অবৈধ গ্যাস সংযোগের নামে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ, যুবক আটক
.............................................................................................
ছয় মাসের মধ্যে মাদকের মামলা নিষ্পত্তির নির্দেশ
.............................................................................................
মহেশখালীতে দুই সন্ত্রাসী গ্রুপের গোলাগুলিতে যুবক নিহত
.............................................................................................
শিবচরে ৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ
.............................................................................................
শনির আখড়ায় সিএনজি-অটোরিকশায় ইয়াবাসহ যুবক আটক
.............................................................................................
সাবেক এমপিপুত্র রনির যাবজ্জীবন
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রীর নামে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে প্রতারণা, গ্রেপ্তার ৫
.............................................................................................
উড়োজাহাজে পরিত্যক্ত অবস্থায় ৯ কেজি সোনা
.............................................................................................
দুদকও আড়ি পাতছে ফোনে
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার আপিল নিষ্পত্তির শেষ সময় ৩১ অক্টোবর
.............................................................................................
জালিয়াতি করে ৪০০ জনের চাকরি
.............................................................................................
এমবিবিএস পরীক্ষায় ৫ নম্বর কাটার সিদ্ধান্ত স্থগিত
.............................................................................................
শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টা মামলায় ১০ জনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ
.............................................................................................
সাত খুন মামলার রায় পিছিয়ে ২২ আগস্ট
.............................................................................................
রাষ্ট্রদ্রোহ ও নাশকতার মামলার খালেদার হাজিরা ১২ সেপ্টম্বর
.............................................................................................
বিচারকদের চাকরির বিধি : খসড়া গ্রহণ করেনি আপিল বিভাগ
.............................................................................................
গৃহকর্মী আদুরী নির্যাতন মামলায় গৃহকর্ত্রী নওরীনের যাবজ্জীবন
.............................................................................................
আরও দুই সপ্তাহ ভ্রাম্যমাণ আদালত চলবে
.............................................................................................
হানিফ ফ্লাইওভারের বিভিন্ন পয়েন্টের সিঁড়ি সরাতেই হবে
.............................................................................................
জুলফিকার রনি গ্রেপ্তার
.............................................................................................
ভ্রাম্যমাণ আদালত বিষয়ে হাইকোর্টের রায় আরো দুই সপ্তাহ স্থগিত
.............................................................................................
খালেদার আবেদন খারিজের আদেশ বহাল
.............................................................................................
ধর্ষণের অভিযোগে অভিনেতা তানভীর তনু গ্রেপ্তার
.............................................................................................
শিশু আবদুল্লাহ হত্যায় একজনের মৃত্যুদণ্ডা
.............................................................................................
দুর্নীতির দুই মামলায় খালেদা আদালতে
.............................................................................................
মওদুদের বাড়ির নিয়ন্ত্রণ নিতে কাজ শুরু রাজউকের
.............................................................................................
ঐশীকে মৃত্যুদণ্ডের পরিবর্তে যাবজ্জীবন
.............................................................................................
বিচার বিভাগকে বিক্ষুব্ধ করবেন না: প্রধান বিচারপতি
.............................................................................................
খালেদার বিরুদ্ধে কয়লাখনি দুর্নীতি মামলা চলবে
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: মো: হাবিবুর রহমান সিরাজ
আইন উপদেষ্টা : অ্যাড. কাজী নজিব উল্লাহ্ হিরু
সম্পাদক ও প্রকাশক : অ্যাডভোকেট মো: রাসেদ উদ্দিন
সহকারি সম্পাদক : বিশ্বজিৎ পাল
যুগ্ন সম্পাদক : মো: কামরুল হাসান রিপন
নির্বাহী সম্পাদক: মো: সিরাজুল ইসলাম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : সাগর আহমেদ শাহীন

সম্পাদক কর্তৃক বি এস প্রিন্টিং প্রেস ৫২ / ২ টয়েনবি সার্কুলার রোড, সূত্রাপুর ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ৯৯ মতিঝিল , করিম চেম্বার ৭ম তলা , রুম নং-৭০২ , ঢাকা থেকে প্রকাশিত ।
মোবাইল: ০১৭২৬-৮৯৬২৮৯, ০১৬৮৪-২৯৪০৮০ Web: www.dailybishowmanchitra.com
Email: news@dailybishowmanchitra.com, rashedcprs@yahoo.com
    2015 @ All Right Reserved By dailybishowmanchitra.com

Developed By: Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD